মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:৫২ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ ::
সিলেটের সর্বকনিষ্ঠ প্যানেল চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন আজিম শাবিতে শিক্ষার্থীদের উপর নগ্ন হামলার প্রতিবাদে জেলা ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল সেই দুই রির্টানিং কর্মকর্তাকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের নির্দেশ উত্তাল শাবিপ্রবিতে চলছে ভর্তি কার্যক্রম ‘যেই ভিসি ‘কসাই’, সেই ভিসির পতন চাই! শাবির হলে হলে শিক্ষার্থীদের তালা, হলগুলো শিক্ষার্থীদের নিয়ন্ত্রণে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে উত্তাল শাবি ইভিএমে ভোট কারচুপির সুযোগ নেই: মন্ত্রী তাজুল ইসলাম শাবিতে শিক্ষার্থীর সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ, তদন্ত কমিটি গঠন তীব্র ঝড়ে যুক্তরাষ্ট্রের ২৭০০ ফ্লাইট বাতিল কমলগঞ্জে অগ্নিকাণ্ড, ১০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি এবার ভিসির পদত্যাগের দাবিতে উত্তাল শাবি তাহিরপুরে কোয়ারিতে মাটি চাপায় প্রাণ গেল শ্রমিকের শাবিপ্রবির সিরাজুন্নেসা হলের নতুন প্রভোস্ট ড. নাজিয়া কানাইঘাটে সাংবাদিকের হাত-পা ‘কাটলো’ প্রতিপক্ষ

দুদকের গণশুনানি: ভোগান্তির শীর্ষে পাসপোর্ট-নির্বাচন অফিস, মুক্ত নয় সিসিকও

বিশেষ প্রতিবেদক
  • আপডেট : সোমবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২১
দুদকের গণশুনানি: ভোগান্তির শীর্ষে পাসপোর্ট-নির্বাচন অফিস, মুক্ত নয় সিসিকও - Natun Sylhet

সেবা চাইতে গেলে ফাইল আটকা পড়ে পাসপোট ও নির্বাচন অফিসে। ধর্না দেওয়া হয় ঢাকার। আবার দালাল ধরে গেলে ঠিকই স্বল্প সময়ে কাজ হয়। সেবা গ্রহিতাদের অনেকে সামান্য কাজের জন্য বছরের পর বছর ঘুরে কেবল পায়ের জুতা খুইয়েছেন। কাজের কাজ কিছুই হয়নি।

অভিযোগ থেকে মুক্ত নয় সিলেট সিটি করপোরেশন, বিআরটিএ, এলজিইডি, গণপূর্ত, পানি উন্নয়ন বোর্ড, ওসমানী হাসপাতাল, জোনাল সেটেলম্যান্ট অফিস। আর সাব রেজিস্ট্রার অফিসেতো একটি দলিলে কমমূল্যে সম্পাদন করে যথারীতি সরকারের ২৭ লাখ টাকা রাজস্ব ফাঁকির অভিযোগ এসেছে।

এমন শত অভিযোগ নিয়ে রোববার (২৮ নভেম্বর) দুদকের গণশুনানীতে অংশ নেন অন্তত ৪ শতাধিক সেবা গ্রহিতা।শুনানিকালে মঞ্চে উপস্থিত দুদকের কমিশনার (তদন্ত) মো. জহুরুল হক বলেন, সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বলেন, দেশের মালিক জনগণ। তাদের ট্যাক্সের টাকায় বেতন পান। কিন্তু আপনি তাঁদের দেশের মালিকানা কোথায় দিলেন। এক মিনিটে যে কাজ হয়, সেটিতে ৪ বছর লাগিয়েছেন! মানুষ কাজের জন্য গেলে ঢাকা দেখান, আবার দালাল ধরে গেলে কাজ হয়। শুনানীকালে উত্থাপিত অভিযোগকারীসহ সকল সেবাগ্রহিতার কাজ দ্রুত দিতে নির্দেশ দেন। নয়তো দুদক ধরে নিয়ে আসবে।

শুনানীকালে দেখা যায়, প্রাথমিকের গন্ডি পেরোনো সালাহ উদ্দিন আগের করা পাসপোর্টের মেয়াদ বাড়াতে গেলে তার জাতীয় পরিচয়পত্রে ও পাসপোর্টে বয়সের পার্থক্য দেখানো হয়। অথচ দু’টিতেই তার বয়সের ত্রুটি ছিল না। তারপরও বয়স প্রমাণে তাকে এসএসসি সনদ হাজির করতে বলা হয়। নিজে ক্লাস ফোর পর্যন্ত পড়ালেখা করেছেন জানান। তারপরও চাওয়া হয় এসএসসি সনদ। কিন্তু কোথায় থেকে দেবেন। সেবাগ্রহীতা দ্রুত সমস্যার সমাধান চান।

দুদকের গণশুনানিতে হাজির হন তিনি। শুনানিকালে মঞ্চে উপস্থিত দুদকের কমিশনার (তদন্ত) মো. জহুরুল হক সিলেট বিভাগীয় পাসপোর্ট ও ভিসা অফিসের কর্মকর্তার উদ্দেশে বলেন, যিনি প্রাথমিকের গন্ডি পেরোননি, তিনি এসএসসির সনদ কোথায় থেকে দেবেন। একইভাবে অভিযোগকারী গিয়াস উদ্দিন পাসপোর্ট অফিসে সেবা নিতে গেলে ফাইল ঢাকায় আটকে পড়ার অজুহাত দেখিয়ে হয়রানির অভিযোগ তোলেন। আর দালালের মাধ্যমে গেলে দ্রুত হয়ে যায়।

দুদক কমিশনার সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে বললেন, পাসপোর্ট নিয়ে ভেজাল লাগাচ্ছেন কেন? সমাধান করে দেন।আমি সিলেটে দীর্ঘদিন জজ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি।সিলেটে থাকেন আর সিলেটের মানুষের পাসপোর্টের প্রয়োজন বুঝেন না? সেবাগ্রহীতাকে ঢাকা দেখাবেন না, সিলেটের সমস্যা সিলেটেই সমাধান করবেন। জবাবে পাসপোর্টের পরিচালক বিভিন্ন সমস্যা এক সপ্তাহের মধ্যে সমাধানের প্রতিশ্রুতি দেন।

এ সময় আরও অনেকে অভিযোগ উত্থাপন করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে দুদক কমিশনার বলেন, পাসপোর্ট আগে অফিসের দালাল নির্মুল করার নির্দেশ দেন এবং ভুক্তভোগীদের কাজ দ্রুত করে দিতে সময় বেধে দেন।

সেবাগ্রহীতা সালেহা বেগম ২০১৭ সালের ১৪ মে জাতীয় পরিচয় পত্রে নাম সংশোধনের আবেদন করেন। সালেহা বেগম বাদ দিয়ে ‘খাতুন’ শব্দটি যোগ করতে গিয়ে চার বছর অব্দি নির্বাচন অফিসে ধর্না দিয়ে আসছেন। এখনো কাজ হয়নি।

দুদকের গণশোনানীতে তার অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা শুকুর মাহমুদ মিয়া বলেন, সংশোধনের কাজটি এক মিনিটে করে দেবেন।

শুনানিকালে মঞ্চে উপস্থিত দুদকের কমিশনার (তদন্ত) মো. জহুরুল হক তাকে ভৎসনা করে বলেন, দেশের মালিক জনগণ। তাদের ট্যাক্সের টাকায় বেতন পান। কিন্তু আপনি দেশের মালিকানা কোথায় দিলেন। চার বছরে যে কাজ করতে পারেননি, এখন বলছেন এক মিনিট করে দেবেন। এক মিনিট নয়, এক সপ্তাহে কাজটি করে দিবেন।

একই দপ্তরে আরেক অভিযোগকারী জুবের আহমদ নাইম বলেন, তিনি জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধনের ২০১৮ সালের ২৩ মে আবেদন করেন। কিন্তু তিন বছরে এখনো এসএমএস-ই পাননি। তার কাজটি তিনদিনের মধ্যে করে দেওয়ার আশ্বাস দেন নির্বাচন কর্মকর্তা। দুদক কমিশনার ওই কর্মকর্তাকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, এসব ঘটনার পুণরাবৃত্তি যেন না হয়। যথা সময়ে কাজ না হলে দুদকে জানাবেন।

শুধু পাসপোর্ট বা জাতীয় পরিচয়পত্র সংশোধন নয়, সরকারি বিভিন্ন সেবা প্রাপ্তি নিয়ে অভিযোগ উত্থাপন করে ডজনখানেক ব্যক্তি।

রোববার নগরীর রিকাবিবাজারের নজরুল অডিটোরিয়ামে দুদকের গণশুনানিতে প্রায় চার শতাধিক লোক অংশ নেন। সাবরেজিস্ট্রি অফিস, সেটেলম্যান্ট অফিস, সিটি করপোরেশন, গণপূর্ত, বিআরটিএ, ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, সিভিল সার্জন, সড়ক ও জনপথসহ সরকারি ও আধা সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের বিরুদ্ধে অভিযোগের শুনানি হয়।

অভিযোগের সরাসরি জবাব দেন সংশ্লিষ্টরা। প্রতিশ্রুতি দেন দ্রুত তাদের কাজ করে দেওয়ার। বছরের পর বছর ও মাসের পর মাস গেলেও দুদকের শুনানিতে অংশ নিয়ে কর্মকর্তারা এক মিনিট, তাৎক্ষণিক আর এক সপ্তাহের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

এছাড়া ওসমানী হাসপাতালে ওষুধ চুরি ও পরীক্ষার মেশিন নষ্ট প্রসঙ্গে আবুল হোসেন নামের এক ব্যক্তি ওই অভিযোগের জবাব দেন উপ পরিচালক ডা. মাহবুবুল আলম। সেলিম মিয়া চৌধুরী নামের এক ব্যক্তির অভিযোগ- জায়গার শ্রেণি পরিবর্তন করে সরকারের ২৭ লাখ টাকার রাজস্ব ফাঁকি দেওয়া হয়েছে। গোটাটিকের আব্দুল কাউয়ুমের খরিদা ভূমিকে দুইভাগ করে টাকার বিনিময়ে কাজ করে দিয়েছেন সেটেলমেন্ট কর্মকর্তা।

আম্বরখানা কলোনীর উন্নয়ন না করে টাকা উত্তোলন ও ডাস্টবিন সমস্যা নিয়ে কলোনীবাসীর জবাব দেন সিসিকের কাউন্সিলর কয়েস লোদী ও গণপূর্তের প্রকৌশলী রিপন কুমার রায়।

সিটি করপোরেশনে দুই বছর আগে বিয়ে বিচ্ছেদের আবেদন নিস্পত্তি না হওয়ার অভিযোগ ফেব্রুয়ারির মধ্যে করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা।

শুনানিকালে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের উদ্দেশ্যে করে দুদক কমিশনার আরও বলেন, প্রজাতন্ত্রের মালিক জনগণ। তারা আপনাদের পেছনে ছুটবে কেন। মালিক কখনো কর্মচারির পেছনে ছুটে না। এখন থেকে সেভাবেই কাজ করবেন। যাতে জনগণ কাজের জন্য আপনার পেছনে না ছুটে, অর্থ ও সময় নষ্ট না করে।

সাইদুল চৌধুরী নামের এক ব্যক্তি বলেন, ২০১৮ সালের ১৩ ডিসেম্বর মালিকানা বদলীর আবেদন করি। আবেদনটি ২০২১ সালেও সার্ভারে ওঠেনি। জবাবে বিআরটিএ কর্মকর্তা সার্ভার সমস্যা তুলে ধরলেও কমিশনের নির্দেশনায় এক সপ্তাহের মধ্যে সমাধানের আশ্বাস দেন।

এছাড়া ওসমানী মেডক্যাল কলেজ হাসপাতালে ওষুধ চুরি ও ফটক বন্ধ রাখায় রোগী নিয়ে অভিযোগ শুনে দুদক কমিশনার দ্রুত পদক্ষেপ নিতে নির্দেশনা দেন। এ সময় দারা মিয়া নামের এক ব্যক্তি সিটি করপোরেশনের বিরুদ্ধেও অনিয়মের নানা অভিযোগ তুলে ধরেন।

গণশুনানির আগে জেলা প্রশাসক কাজী এম এমদাদুল ইসলামের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন, দুদকের মহাপরিচালক (প্রশিক্ষণ, প্রতিরোধ ও আইসিটি) একেএম সোহেল, এসএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার পরিতোষ ঘোষ, দুদক সিলেটের পরিচালক মফিজুল ইসলাম ও দুর্নীতি মুক্তকরণ ফোরামের উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট মুজিবুর রহমান।

শেয়ার করুন...

এই ক্যাটাগরীর অন্যান্য সংবাদ...

আমাদের সাথে ফেইসবুকে সংযুক্ত থাকুন

© নতুন সিলেট মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২২
Design & Developed BY Cloud Service BD
themesba-lates1749691102