বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২, ০২:৫৫ অপরাহ্ন
সর্বশেষ ::
ভালো পরিবেশের জন্য ভালো সম্পর্ক গুরুত্বপূর্ণ: সেনাপ্রধান ড. মোমেনের নেতৃত্বে সিলেটে আসছে যুক্তরাজ্যের প্রতিনিধি দল খালেদা জিয়া ও খন্দকার আব্দুল মুক্তাদিরের রোগমুক্তিতে দোয়া মাহফিল তাহিরপুরে করোনা সংক্রমন প্রতিরোধে পুলিশের মাইকিং শাবিতে উপাচার্যের পদত্যাগ দাবিতে অনশন শুরু শিক্ষার্থীদের নৌকার মনোনিত চেয়ারম্যান প্রার্থীর উঠান বৈঠক সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে দূর্ঘটনায় চালক নিহত নগরীর টিলাগড়ে ভয়াবহ আগুন, দোকান পুড়ে ছাই সিলেট জেলা হোটেল শ্রমিক ইউনিয়নের বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হবিগঞ্জে ছুুরিকাঘাতে যুবক খুন সিলেটে মোটরসাইকেল-সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে যুবকের মৃত্যু ভয়ঙ্কর করোনা: ঢাকাসহ ১২ জেলাকে উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা উপাচার্য পদত্যাগ না করলে আমরণ অনশন ঘোষণা শিক্ষার্থীদের  দেশে করোনায় আরও ১০ মৃত্যু, সনাক্ত ৮,৪০৭ জন যেভাবে উদঘাটন শিমু হত্যার রহস্য

তিন বছরের সন্তানকে বিক্রির চেষ্টা মাদকাসক্ত মায়ের!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
  • আপডেট : বুধবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০২১
তিন বছরের সন্তানকে বিক্রির চেষ্টা মাদকাসক্ত মায়ের!

অভাবের কারণে নিজের তিন বছরের কন্যা সন্তানকে বিক্রি করে দিতে যাচ্ছিলেন মা। তবে পুলিশের সহায়তায় ওই শিশুকে উদ্ধার করেছেন স্বেচ্ছাসেবীরা। বর্তমানে ওই শিশুকে একটি চাইল্ড কেয়ার হোমে রাখা হয়েছে। ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতায় ঘটে এ ঘটনা।

গত চার বছর ধরে হেস্টিংস ফ্লাইওভারের তলায় দুস্থ শিশুদের পড়াশোনা শেখায় এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা। ‘প্রান্তকথা’ নামের সে সংস্থায় কাজ করেন স্থানীয় নারীরা। স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার পক্ষ থেকে বাপ্পাদিত্য মুখোপাধ্যায় জানান, এখানেই মাসি আসমিনা বিবির সঙ্গে রোজ আসতো তিন বছরের আমিনা। ফুটফুটে মেয়েটি তার কোলেই থাকত। ছবি আঁকত। আচমকাই একদিন আসা বন্ধ করে দেয় সে। চিন্তায় পড়ে যান স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার কর্মীরা।

শিশুটির মা সালমা মাদকাসক্ত। জন্ম থেকেই মাসির কাছেই মানুষ আমিনা। মা থাকেন রাজস্থানের আজমীর শরিফের কাছে। জানা গিয়েছে, সম্প্রতি মাসিকে ফোন করে আমিনার মা জানান, ‘মেয়েকে এবার আমার কাছে নিয়ে যাবো।’ আসমিনা বিবির বক্তব্য, খবর নিয়ে জানতে পেরেছিলাম চূড়ান্ত অর্থাভাবে ভুগছেন আমার বোন। মেয়েকে বিক্রি করে দেওয়ার পরিকল্পনা করছেন তিনি। এরপর দ্রুত স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার কর্মীদের বিষয়টি জানান আসমিনা।

আমিনার দাদু থাকেন ডায়মন্ড হারবারে। সেখানে তাকে নিয়ে চলে যান সালমা। কলকাতা চাইল্ড ওয়েলফেয়ার কমিটির চেয়ারপারসন মহুয়া শূর জানিয়েছেন, সোমবার (২৭ ডিসেম্বর) সকালেই ডায়মন্ড হারবার থানার কাছে নির্দেশ গিয়েছিল, অবিলম্বে শিশুটিকে চাইল্ড ওয়েলফেয়ার কমিটির কাছে নিয়ে আসতে হবে। সেই মতো সোমবার একটি টিম পৌঁছায় ডায়মন্ড হারবারে। সেখান থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়।

মহুয়া শূর বলেন, শিশুটির মাসি একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার মাধ্যমে আমাদের কাছে অভিযোগ করেছিলেন। আমরা খবর পেয়েছি বাচ্চাটিকে আজমীরে বিক্রি করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছিল। দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। বাচ্চাটি আপাতত আমাদের হোমে রয়েছে।

নতুনসিলেট২৪ডটকম / ২৯ ডিসেম্বর ২০২১ / এএ

শেয়ার করুন...

এই ক্যাটাগরীর অন্যান্য সংবাদ...

আমাদের সাথে ফেইসবুকে সংযুক্ত থাকুন

© নতুন সিলেট মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২২
Design & Developed BY Cloud Service BD
themesba-lates1749691102