মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০১:৩৪ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ ::
দুবাগ আল-ইসলাহ’র নতুন কমিটি: সভাপতি কমর উদ্দিন, সম্পাদক নাসির হবিগঞ্জে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান নবম শ্রেণির ছাত্রী অষ্টমণি সমাজ সেবা উপ-পরিচালক! ফেসবুক ব্যবহার করতে লাগবে অভিভাবকের অনুমতি আকরামের মুক্তির দাবিতে সিলেটে ছাত্রদলের বিক্ষোভ দোয়ারায় স্কুল শিক্ষার্থীকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ ওসমানী হাসপাতালের ১৭ কর্মচারীকে বিদায় সংবর্ধনা ‘হাসান মার্কেটের উন্নয়নে সিসিক অতীতেও কাজ করেছে’ ‘দারিদ্র্য বিমোচনে দক্ষিণ এশীয় দেশগুলোর কাজ করা উচিত’ ৮২ বার পেছালো সাগর-রুনি হত্যার প্রতিবেদনের সময় বঙ্গমাতার নামে সিলেট মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় নামকরণের সিদ্ধান্ত শক্তিশালী যোগাযোগ নেটওয়ার্কে এগিয়ে যাবে দেশ জকিগঞ্জে ইয়াবাসহ নারী গ্রেফতার খুলেছে শাবি, হলে ফেরা শিক্ষার্থীদের বরণ নাইজেরিয়ায় তেল শোধনাগারে বিস্ফোরণ, নিহত ২৫

দোয়ারায় যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে বিষপানে হত্যার চেষ্টা

নতুন সিলেট প্রতিবেদক দোয়ারাবাজার :
  • আপডেট : শনিবার, ২ অক্টোবর, ২০২১
দোয়ারায় যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে বিষপানে হত্যার চেষ্টা - Natun Sylhet

সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারে যৌতুকের দাবি মেটাতে অক্ষম হলে স্ত্রীকে বিষপানে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ উঠেছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গত দু’বছর আগে উপজেলার বাংলাবাজার ইউনিয়নের মধ্য কলাউড়া গ্রামের নজির আহমদের পুত্র নূর মোহাম্মদ ও একই ইউনিয়নের ডালিয়া গ্রামের আব্দুল মমিন মিয়ার মেয়ে আছমা আক্তার পরস্পরকে ভালোবেসে বিয়ে করেন। বিয়ের কিছুদিন না যেতেই যৌতুকের দাবিতে তাদের সংসারে শুরু হয় সম্পর্কের টানাপোড়ন। স্ত্রী আছমার উপর চলে স্বামী নুর মোহাম্মদসহ পরিবারের অন্য সদস্যদের শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন। এরই ধারাবাহিকতায় কিছুদিন আগে ফার্নিচার আনতে আছমাকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করে নূর মোহাম্মদ ও তার মা হালিমা আক্তার। মেয়ের বাবা মমিন মিয়া মেয়ের উপর নির্যাতনের চাপ কমাতে বসতভিটার কিছু অংশ বিক্রি করে জামাতাকে ফার্নিচার কিনে দেন।

জানা যায়, গত ১৫ আগস্ট নুর মোহাম্মদ সৌদি আরব যাবে বলে নগদ দুই লক্ষ টাকা নিয়ে আসতে আছমাকে তার পিত্রালয়ে পাঠায়। আর্থিক দৈন্যদশার কারণে দাবি আদায়ে ব্যর্থ হলে আছমা আক্তারকে দু’দিন অনাহারে রেখে ক্রমাগত নির্যাতন চালানো হয় তার উপর। এতে আছমা অজ্ঞান হয়ে যায়। ওই সুবাদে পানির সাথে বিষ মিশিয়ে তাকে পান করানো হয়। বিযয়টি জানাজানি হলে প্রতিবেশিরা তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। আছমার পিতা আব্দুল মমিন আইনের দ্বারস্থ হলে তাকে প্রাণনাশের হুমকিও দেয়া হয়।

সম্প্রতি আছমা আক্তার বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধিত ২০০৩) এর ১১(ক)/ ৩০ ধারায় আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। বিজ্ঞ আদালত মামলাটি দোয়ারাবাজার থানায় পাঠান।

তদন্তকারী কর্মকর্তা সুপ্রাংশু দে দিলু বলেন তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কিছুই বলা যাবেনা।দোয়ারাবাজার থানার ওসি দেবদুলাল ধর মামলার বিষয়টি সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন...

এই ক্যাটাগরীর অন্যান্য সংবাদ...

আমাদের সাথে ফেইসবুকে সংযুক্ত থাকুন

© নতুন সিলেট মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD
themesba-lates1749691102