রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০৩:০২ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ ::
পঞ্চম ধাপে সিলেটের আরও ৭৫ ইউপিতে ভোট ৫ জানুয়ারি  রাত পোহালে ৭৭ ইউপিতে ভোট: ঝুঁকিপূর্ণ সিলেটের ১৩৮ কেন্দ্র দোয়ারায় বসতঘরে অগ্নিকাণ্ড, দুই লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি নূরল আমীন এর ‘ভাটি বাঙলার উচ্ছ্বাস’ কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন হবিগঞ্জে ১৩০ টাকায় পুলিশের চাকরি পেলেন ৪৪ জন কমলগঞ্জে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের করোনা টিকা প্রদান শুরু খালেদা জিয়ার সুস্থতায় ছাত্রদলের শিরণী বিতরণ ‘দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে যোগাযোগ স্থগিত করছে বাংলাদেশ’ বিদ্রোহী কবিতার শতবর্ষে আবৃত্তি উৎসবের লোগো উন্মোচন তাহিরপুর সীমান্তে গাঁজা-মদের চালানসহ আটক ৩ শাবিতে টিকার দ্বিতীয় ডোজের কার্যক্রম শুরু ব্যালন ডি’অর মেসির হাতেই? বাংলাদেশসহ ১৪টি দেশে ফ্লাইট চালু করবে ভারত ছাত্রদল নেতা সামসুদ্দোহার পিতার মৃত্যুতে সিলেট ছাত্রদলের শোক করোনার নতুন ধরন উদ্বেগের, নাম ‘ওমিক্রন’: ডব্লিউএইচও

বিয়ানীবাজারে বাহার খুন : আপন দুই ভাইয়ের যাবজ্জীবন

নতুন সিলেট প্রতিবেদক :
  • আপডেট : মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২১
বিয়ানীবাজারে বাহার খুন : আপন দুই ভাইয়ের যাবজ্জীবন - Natun Sylhet

সিলেটের বিয়ানীবাজারের প্রবাসী বাহার উদ্দিন (৩২) খুন হওয়ার প্রায় আট বছর পর আদালত রায় প্রদান করেছেন। মামলার এজাহার নামীয় দুই আসামীর যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন বিজ্ঞ আদালত।

সোমবার (২৫ অক্টোবর) দুপুরে সিলেটের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ১ম আদালতের বিচারক ইব্রাহিম মিয়া এই রায় ঘোষণা করেন।

রায়ে সন্তোষ্টি জানিয়েছেন নিহতের ছোট ভাই নাজির উদ্দিন বলেন, দীর্ঘদিন এরকম একটি সংবাদ শোনার অপেক্ষা ছিলাম। আমরা প্রধান যে দুইজনকে অভিযুক্ত করেছিলাম আদালত তাদেরকে দণ্ড প্রদান করেছেন। এ রায়ে আমরা খুশি হয়েছি।

ঘোষিত রায়ে প্রতিবেশী গ্রামের আপন দুই ভাই আলতাফ হোসেন লালা ও মুসলিম উদ্দিনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রদান করেন আদালত। তারা উপজেলার দুবাগ ইউনিয়নের পাঞ্জিপুরী গ্রামের আব্দুল লতিফ লতু মিয়ার ছেলে এবং খুন হওয়া সৌদি প্রবাসী বাহার উদ্দিনের বাগদত্তা কলসুমা বেগমের ভাই।

২০১৩ সালের ১০এপ্রিল কুশিয়ারা নদীর দুবাগ বাজারের খেয়াঘাট থেকে বাহারের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে বিয়ানীবাজার থানা পুলিশ। হত্যাকান্ডের দীর্ঘ ৫ বৎসর পর পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ-সিআইডি এই হত্যা রহস্য উদঘাটন করে। নিহত বাহার উদ্দিন বিয়ানীবাজার উপজেলার দুবাগ ইউনিয়নের গয়লাপুর গ্রামের ময়নুল ইসলাম ময়না মিয়ার পুত্র।

এ ঘটনায় ৯জনকে আসামী করে নিহতের পিতা বিয়ানীবাজার থানায় একটি হত্যা মামলা (নং-৩, তারিখ- ১১/০৪/২০১৩ইং) দায়ের করেন। মামলার প্রথম তদন্ত কর্মকর্তা বিয়ানীবাজার থানার এস.আই অরুপ কুমার চৌধুরী আদালতে চুড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন।
তবে মামলার বাদী ময়নুল ইসলাম ময়না মিয়া চুড়ান্ত প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে আদালতে নারাজি আবেদন দাখিল করলে সিলেটের সিনিয়র চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত মামলাটি অধিকতর তদন্তের জন্য সিআইডি পুলিশকে নির্দেশ দেন। দীর্ঘ তদন্ত শেষে সিআইডি এ মামলায় প্রবাসী বাহার উদ্দিনের বাগদত্তা স্ত্রী কুলসুমা বেগম ও তার ভাই আলতাফ হোসেন লালা এবং মুসলিম উদ্দিনসহ ১১ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে।

জানা যায়, নিহত প্রবাসী বাহার উদ্দিনের সাথে একই ইউনিয়নের পাঞ্জিপুরী গ্রামের মৃত আব্দুল লতিফ লতু মিয়ার স্কুল শিক্ষিকা কন্যা কুলসুমা বেগমের আক্বদ সম্পন্ন হয়। মুত্যুর প্রায় ১০মাস আগে টেলিফোনে সম্পন্ন হওয়া বাগদত্তা স্ত্রীকে ঘরে তুলতে ২০১৩ সালের ৩১শে মার্চ সৌদিআরব থেকে দেশে আসেন বাহার।
পরিবারের ৯ ভাই-বোনের মধ্যে তিনি ছিলেন সবার বড়। দেশে আসার পর ৮ এপ্রিল রাতে তার বাগদত্তা স্ত্রী কুলসুমা তাকে খবর দিয়ে নিজ বাড়িতে নেন। এর দু’দিন পর কুশিয়ারা নদীর চরিয়াবাজার খেয়াঘাটে তার লাশ পাওয়া যায়।

এদিকে সোমবার আদালত রায় ঘোষণাকালে মামলার অপর আসামীদের বেকসুর খালাস প্রদান করেন। বাদী পক্ষের আইনজীবি এডভোকেট দেলোওয়ার হোসেন দিলু বলেন, আদালত দুই আসামী যাবজ্জীবন কারাদন্ড প্রদান করেছেন। এতে আমরা সন্তুষ্ট।

অপরদিকে আসামীপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এডভোকেট আব্দুল খালিক ও এডভোকেট আয়শা বেগম শেলী। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন এডভোকেট রঞ্জিত।

ঘোষিত এই রায়ের ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে প্রবাসী বাহার উদ্দিনের পিতার ময়নুল ইসলাম ময়না মিয়া বলেন-আমি আদালতের আজকের এই রায়কে পুনর্বিবেচনা করে খুনিদের ফাঁসির দাবি জানাচ্ছি। এছাড়াও ছেলে বাহারের হত্যাকারীদের ফাঁসি কার্যকরের জন্য তিনি আইনী লড়াই চালিয়ে যাবেন বলেও জানান।

শেয়ার করুন...

এই ক্যাটাগরীর অন্যান্য সংবাদ...

আমাদের সাথে ফেইসবুকে সংযুক্ত থাকুন

© নতুন সিলেট মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD
themesba-lates1749691102