বৃহস্পতিবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪:৫২ অপরাহ্ন
সর্বশেষ ::
চোখে টর্চলাইটের আলো ফেলা নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ৫০ হারের নিয়তি খণ্ডাতে পারেনি বাংলাদেশ নারী-পুরুষ সমানভাবে কাজ করছে বলেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী আমিরাতে বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী দিবস উদযাপন ৬ মাস রাতে বন্ধ থাকবে ঢাকার রানওয়ে, জরুরি অবতরণ সিলেটে খালেদার অসুস্থতাকে পুঁজি করে বিএনপি আন্দোলন করছে-প্রধানমন্ত্রী বিশ্বনাথে পুকুরে ডুবে প্রতিবন্ধী যুবতীর মৃত্যু মৌলভীবাজারে ইটভাটা শ্রমিককে কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা `কর্মগুনে সবার প্রিয় হয়ে উঠেছেন অ্যাডভোকেট জালাল’ কর্মী প্রেরণে বাংলাদেশ-বসনিয়া সমঝোতা আলোচনায় সিলেটের সাইবার ট্রাইব্যুনালে ঝুমন দাশের জামিন বহাল ভারতে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত: প্রতিরক্ষা প্রধানসহ নিহত ১৩ তাহিরপুর সীমান্তে ভারতীয় রুপিসহ যুবক আটক জাতির পিতার আদর্শে তরুণ প্রজন্মকে প্রস্তুত করতে যুবলীগকে আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ৫৭ দেশে ছড়িয়ে পড়েছে ওমিক্রন : ডব্লিউএইচও

অস্বাস্থ্যকর খাবার, পাঁচভাই ও পানসী রেস্টুরেন্টকে জরিমানা

নতুন সিলেট প্রতিবেদক :
  • আপডেট : মঙ্গলবার, ২ নভেম্বর, ২০২১
অস্বাস্থ্যকর খাবার, পাঁচভাই ও পানসী রেস্টুরেন্টকে জরিমানা - Natun Sylhet

পচা ও বাসি খাবার পরিবেশন ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের দায়ে সিলেট নগরের পানসী ও পাঁচভাই রেস্টুরেন্টকে এক লাখ ৬০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)-৯ পরিচালিত ভ্রাম্যমান আদালতে অভিযানে নগরের জিন্দাবাজার এলাকার এই দুই রেস্টুরেন্টকে বিপুল অংকের জরিমানা করা হয়।

এরআগে একই অভিযানে ওই এলাকারই ভোজনবাড়ি রেস্টুরেন্টকে সিলগালা করে ভ্রাম্যমান আদালত। এসময় ভোজনবাড়ি থেকে দুজনকে আচটকও করা হয়।

মঙ্গলবার (২ নভেম্বর) দুপুরে ঢাকা থেকে আসা র‍্যাবের বিশেষ ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসুর নেতৃত্বে নগরের জনপ্রিয় এই তিনটি রেস্টুরেন্টে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে করা হয়।

অভিযানে পানসী ও পাঁচভাই দুই রেস্টুরেন্টেই মেয়াদোত্তীর্ন ও বাসি খাবার এবং অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে খাবার পরিবেশনের প্রমাণ পায় আদালত। ফলে দুই রেস্টুরেন্টকে ৮০ হাজার টাকা করে মোট ১ লাখ ৬০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এর আগে বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে ভোজনভাড়ি রেস্টুরেন্টে অভিযান শুরু করে র‍্যাব-৯। এসময় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, বিএসটিআইসহ সংশ্লিষ্ট সকল কর্তৃপক্ষ উপস্থিত ছিলেন।

অভিযান শেষে ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, এখানে অভিযানে এসে আমরা খাদ্যের মানে ব্যাপক অনিয়ম পেয়েছি। তাছাড়া ২০১৯ সালের জানুয়ারি মাস থেকে তাদের ট্রেড লাইসেন্স নবায়ন নেই, খাবার পরিবেশনের বৈধ কাগজপত্র নেই। সকল কিছু মিলে আমরা সাময়িক সময়ের জন্য রেস্টুরেন্টটি বন্ধ করে তাদেরকে সময় দিয়েছি। আপাতত জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রেস্টুরেন্টের দুইজনকে আমাদের সাথে নিয়ে যাচ্ছি।

আটককৃত একজন রেস্টুরেন্টের ম্যানেজার ও অপরজন সুপারভাইজার।

পলাশ কুমার বসু জানান, এসব রেস্টুরেন্টে পূর্বে একাধিকবার অভিযান চালালেও কোন কাজ হয়নি।

তিনি জানান, অভিযানে রেস্টুরেন্টগুলোতে এমন অনেক খাদ্য পেয়েছি যেগুলো দুই থেকে তিন দিন আগের।

শেয়ার করুন...

এই ক্যাটাগরীর অন্যান্য সংবাদ...

আমাদের সাথে ফেইসবুকে সংযুক্ত থাকুন

© নতুন সিলেট মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD
themesba-lates1749691102