রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০২:২১ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ ::
দোয়ারায় বসতঘরে অগ্নিকাণ্ড, দুই লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি নূরল আমীন এর ‘ভাটি বাঙলার উচ্ছ্বাস’ কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন হবিগঞ্জে ১৩০ টাকায় পুলিশের চাকরি পেলেন ৪৪ জন কমলগঞ্জে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের করোনা টিকা প্রদান শুরু খালেদা জিয়ার সুস্থতায় ছাত্রদলের শিরণী বিতরণ ‘দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে যোগাযোগ স্থগিত করছে বাংলাদেশ’ বিদ্রোহী কবিতার শতবর্ষে আবৃত্তি উৎসবের লোগো উন্মোচন তাহিরপুর সীমান্তে গাঁজা-মদের চালানসহ আটক ৩ শাবিতে টিকার দ্বিতীয় ডোজের কার্যক্রম শুরু ব্যালন ডি’অর মেসির হাতেই? বাংলাদেশসহ ১৪টি দেশে ফ্লাইট চালু করবে ভারত ছাত্রদল নেতা সামসুদ্দোহার পিতার মৃত্যুতে সিলেট ছাত্রদলের শোক করোনার নতুন ধরন উদ্বেগের, নাম ‘ওমিক্রন’: ডব্লিউএইচও টঙ্গীতে আগুনে পুড়ে ছাই মাজার বস্তির পাঁচশর বেশি বসতঘর ১৩০০ বছর পুরনো মাটির মসজিদের সন্ধান ইরাকে

২৫৩ ইউপিতে বিনা ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত

নতুন সিলেট ডেস্ক :
  • আপডেট : শনিবার, ১৩ নভেম্বর, ২০২১
২৫৩ ইউপিতে বিনা ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত - Natun Sylhet

প্রথম ধাপে ৭২ জন এবং দ্বিতীয় ধাপে ৮১ জন একক প্রার্থী হিসেবে ভোট ছাড়াই চেয়ারম্যান হয়েছেন। তৃতীয় ধাপের নির্বাচনেও বিনা ভোটে চেয়ারম্যান পেতে যাচ্ছে ১০০ ইউপি।

চেয়ারম্যান পদের এ ১০০ জন একক প্রার্থী সবাই ক্ষমতাসীন দলের।
সব মিলিয়ে এবারের ইউপি নির্বাচনের প্রথম তিন ধাপেই চেয়ারম্যান পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতার ২৫৩ জনের নতুন রেকর্ড তৈরি হয়ে গেছে। বাকি রয়েছে এখনো কমপক্ষে তিনটি ধাপ।

শুক্রবার (১২ নভেম্বর) নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিবালয় এ তথ্য জানিয়েছে।

এর আগে, বৃহস্পতিবার এ নির্বাচনের প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিনে অনেক প্রার্থী সরে দাঁড়ানোতে চেয়ারম্যান পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিদের সংখ্যা বেড়ে যায়।

নির্বাচন কমিশনের তথ্য অনুসারে, ২০১৬ সালের ইউপি নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান হন ২১৭ জন। ২০১১ সালের এসংক্রান্ত কোনো তথ্য নির্বাচন কমিশনের কাছে নেই। ১৯৯৭ সালের নির্বাচনে ৩৭ জন চেয়ারম্যান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন। ১৯৯২ সালে চারটি ইউপিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘটনা ঘটে। ১৯৮৮ সালে চেয়ারম্যান পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হন ১০০ জন।

এবার তৃতীয় ধাপের নির্বাচনে ১০০ জন চেয়ারম্যান ছাড়াও নারীদের জন্য সংরক্ষিত ওয়ার্ড সদস্য পদে ১৩২ জন, সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য পদে ৩৩৭ জন একক প্রার্থী। এরাও ভোট ছাড়াই জনপ্রতিনিধি হচ্ছেন। দ্বিতীয় ধাপেও ৮১ জন চেয়ারম্যান ছাড়াও সদস্য পদে নারীদের জন্য সংরক্ষিত ওয়ার্ডে ৭৩ জন এবং সাধারণ ওয়ার্ডে ২০৩ জন ভোট ছাড়াই সবাই বেসরকারি ফলাফলে নির্বাচিত হয়ে গেছেন।

এবারের তৃতীয় ধাপে চট্টগ্রামের রাউজানের ১৪টি ইউপিতে চেয়ারম্যান, সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের নারী সদস্য সব কটি পদে একক প্রার্থী হিসেবে রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন। ১৪টি ইউনিয়নে সাধারণ ওয়ার্ডে সদস্য পদ রয়েছে ১২৬টি এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ডে নারী সদস্য পদ ৪২টি। এসব পদের সব কটিতে একজন করে জমা দেন। এ ছাড়া রাঙ্গুনিয়ায় ছয়টি ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে শুধু আওয়ামী লীগের প্রার্থীরাই মনোনয়নপত্র জমা দেন।

শেয়ার করুন...

এই ক্যাটাগরীর অন্যান্য সংবাদ...

আমাদের সাথে ফেইসবুকে সংযুক্ত থাকুন

© নতুন সিলেট মিডিয়া গ্রুপ কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। © ২০২১
Design & Developed BY Cloud Service BD
themesba-lates1749691102